ফ্রিজের বাজারে নেই ঈদের আমেজ

Pub: শনিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৮ ৩:১২ অপরাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, আগস্ট ১৮, ২০১৮ ৩:১২ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র ঈদুল আযহা। আর মাত্র ৪ দিন পরই সারাদেশে একযোগে উদযাপিত হবে ঈদুল আযহা তথা কোরবানির ঈদ। আর এই ঈদে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় পশু জবাই করে থাকে সামর্থ্যবান মুসলমানরা।

জবাইকৃত পশুর গোস্ত সংরক্ষণের জন্য প্রতিবছরই ঈদের কেনাকাটায় থাকে ফ্রিজও। প্রায় বছরগুলোতে কোরবানির ঈদকে সমানে রেখে ফ্রিজের বিক্রি বাড়লেও এ বছর ফ্রিজ বেচাকেনায় ভাটা লেগেছে বলে জানিয়েছেন দোকানিরা।

রাজধানীর ফ্রিজ বেচাকেনার অন্যতম বাজার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম সরেজমিনে ঘুরে দোকানিদের অনেককেই অলস সময় পার করতে দেখা গেছে। দোকানিদের কেউ কেউ মোবাইলে গেমস খেলে কেউবা টিভি দেখে সময় পার করছেন।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের স্যামসাং ইলেক্ট্রা সেলস অ্যান্ড ডিসপ্লে ম্যানেজার আনিসুর রহমান ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ঈদ উপলক্ষে গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী সব ধরণের ফ্রিজ আমরা নিয়ে এসেছি। তবে এবার আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে না। এ বছর ফ্রিজ বিক্রি করে ৬০ লাখ টাকা টার্গেট থাকলেও মাত্র ৩০ শতাংশ বেচাকেনা হয়েছে। ক্রেতা দু’-একজন আসলেও বিক্রি নাই।

স্যামসাং ইলেক্ট্রা থেকে কয়েক দোকান পরেই রেডিও ভিশন নামে ইলেকট্রনিক্স পণ্যের দোকানা সেখানে চায়না থেকে আমদানীকৃত মেলিংস্টোন, কেলভিনেটর নামের ফ্রিজ বিক্রয় করা হয়। বিক্রয়কর্মী মো. হেলাল বলেন, গতবার ঈদেও ৫০০ টি ফ্রিজ বিক্রি করেছি। এবার শ’খানেক বিক্রয় করতে পারিনি। বাকি দিনগুলো কি হয় আল্লাহই ভালো জানে।

হুন্দাই ইলেকট্রনিকসের শোরুমের কমার্শিয়াল ম্যানেজার রাইসুল ইসলাম ব্রেকিংনিউজকে তুলে ধরেন তাদের ফ্রিজ বেচাকেনার হালচাল। রাইসুল ইসলাম বলেন, টার্গেটের ২০ শতাংশ ফ্রিজ বিক্রি হচ্ছে না। বিক্রি না কারণটা বুঝতে পারছি না। অন্যান্য বছর জমজমাট থাকলেও এবছর বেচাকেনার কোনো খবর নাই। একজন ভ্যানগাড়ী চালকও ট্রিপ মারতে পারেনি। সকাল থেকে কোনো বেচাকেনা হয়নি। খুবই খারাপ অবস্থা।

মিনিস্টার ফ্রিজের কোম্পানির নিজস্ব শোরুমের সহকারী ম্যানেজার আদ দ্বীন বলেন, এই কোরবানির ঈদে ৩৬ লাখ টাকার ফ্রিজ বিক্রি করার টার্গেট রয়েছে আমাদের। গ্রাহকের কথা বিবেচনা করে আমাদের কোম্পানি নতুন মডেলের ফ্রিজ বাজারে নিয়ে এসেছে। মডেল এম-২৪২ ডিপ ফ্রিজ। কোরবানি ঈদে ডিপ ফ্রিজের চাহিদা থাকে । বেচাকেনা কিছু হয়েছে তবে আমাদের টার্গেট পূরণ হয় কি না জানি না। ঈদেরতো এখনও দিন তিনেক বাকি আছে, দেখি বেচাকেনা কেমন হয়।

পুরান ঢাকার রায়সাহেব বাজার থেকে মাকে নিয়ে ফ্রিজ কিনতে রাজধানীর স্টেডিয়াম মার্কেটে এসেছেন তানভীর। যমুনা ফ্রিজের শোরুমে কথা হলো তার সাথে। পরিচয় পেয়ে তানভীর বলেন, বাবা প্রবাসে থাকেন। তিনি বিদেশ থেকে টাকা পাঠিয়েছেন কোরবানি করার জন্য। কোরবানির দুই মাস পর তিনি দেশে ফিরবেন। তাই এবার ঈদে বাবার জন্য গোস্ত সঞ্চয় করে রাখতেই ফ্রিজ কিনতে এসেছি। পছন্দ হয়েছে এখন দামে বনিবনা হলেই কিনবো আরকি।

যমুনা ইলেকট্রনিকসের ডিলার মিজানুর রহমান বলেন, বেচাকেনা তেমন নেই। সকাল থেকে একটি ফ্রিজ বিক্রয় করেছি। আর এখন গ্রাহক এ একটা ফ্রিজ নিয়ে মুলামুলি করছে। সেটা তো আপনিই দেখলেন। গতমাসের শেষের দিকে যে ছাত্র আন্দোলন হয়েছে। আমার মনে হয় সে কারণে ব্যবসায় মন্দা ভাব চলছে।

এলজি-বাটারফ্লাই শোরুমের ম্যানেজার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এখন পর্যন্ত একটাও ফ্রিজ বিক্রি করিনি। টার্গেট ফিলাপের শতকরা ৫০ ভাগও বিক্রি হয়নি।

নোভা ইলেক্ট্রনিক্স কোং লিমিটেডের পরিচালক জহিরুল ইসলাম বলেন, এ বছর টার্গেটের ৯ শতাংশও ফ্রিজ বিক্রি করতে পারিনি। প্রতি বছরই ক্রেতাদের চাহিদা থাকে ফ্রিজ শেষ হয়ে যায়। এ বছর প্রচুর ফ্রিজ রয়ে গেছে। ক্রেতা নেই। অর্থনৈতিক মন্দার কারণেই হয়তো ক্রেতা কম বলে আমি মনে করি।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1104 বার

আজকে

  • ৯ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ১৩ই মুহাররম, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

 
 
 
 
 
আগষ্ট ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« জুলাই   সেপ্টেম্বর »
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com