রমজানে গরুর মাংসের কেজি ৫২৫, খাসি ৭৫০

Pub: সোমবার, মে ৬, ২০১৯ ৪:৪৪ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, মে ৬, ২০১৯ ৪:৪৪ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বছর ঘুরে আবারও শুরু হচ্ছে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের পবিত্র সিয়াম সাধনার মাস মাহে রমজান। আর এই রমজান মাসজুড়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখতে পণ্যের দাম নির্ধারণ করে দেয়া হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে এবার প্রথম রমজান থেকে ২৬ রমজান পর্যন্ত রাজধানীতে মাংসের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)।

ডিএসসিসি নির্ধারিত দাম অনুযায়ী, আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে রাজধানী ঢাকায় দেশি গরুর মাংস প্রতিকেজি বিক্রি হবে ৫২৫ টাকায়। এছাড়া বিদেশি বা বোল্ডার গরুর মাংস প্রতিকেজি ৫০০ টাকা ও মহিষের মাংস কেজিপ্রতি ৪৮০ টাকায় বিক্রি হবে। সেইসঙ্গে খাসির মাংস প্রতিকেজি ৭৫০ টাকা এবং ভেড়া ও ছাগির মাংস প্রতি কেজি ৬৫০ টাকা ধরে বিক্রি হবে। 

সোমবার (০৬ এপ্রিল) দুপুরে নগর ভবনে মাংস ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ দাম নির্ধারণের কথা জানান ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকন। 

এসময় মেয়র বলেন, ‘যদি কোনও ব্যবসায়ী নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে মাংস বিক্রি করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

সাঈদ খোকন আরও বলেন, ‘আমরা এর আগে নিত্যপ্রয়োজনী পণ্য ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। তারা আমাদের জানিয়েছেন দ্রব্যের মূল্য গত বছরের তুলনায় এবার কোনোভাবেই বাড়বে না। বরং কিছুটা হলেও কমবে। হোটেল রেস্তোরাঁর মালিকদের সঙ্গেও বৈঠক করেছি। তারাও যাতে খাবার স্বাস্থ্যসম্মত রাখে সে জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আজ মাংসের দামও নির্ধারণ করা হল। এতে যদি কোনো অনিয়ম না হয় সেজন্য কাল থেকে ডিএসসিসির বাজার মনিটরিং টিম মাঠে থাকবে। যদি কারও বিরুদ্ধে কোনও অনিয়মের অভিযোগ ও প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে সেই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ 

এর আগে বৈঠকে মেয়রের কাছে মাংস ব্যবসায়ীদের অভিযোগ- গরুর মাংসের দাম বাড়ার পেছনে অন্যতম কারণ হল গাবতলীর হাটের কতিপয় ইজারাদারদের উৎপাত। তাদের কারণে প্রতিটি গরুতে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত খাজনা দিতে হয়। ইজারাদার নামক এই চাঁদাবাজদের নিয়ন্ত্রণ করা গেলে মাংসের দাম অনেক কমবে। জনগণ উপকৃত হবে।

বৈঠকে ঢাকা মহানগর মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সদস্য, সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা, বিভিন্ন সুপারশপের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য, গত বছর কেজিতে ২৫ টাকা কমিয়ে রোজায় দেশি গরুর মাংসের দাম ছিল কেজিপ্রতি ৪৫০ টাকা। সেই হিসেবে গতবারের চেয়ে এবার কেজিতে ৭৫ টাকা দাম বেড়েছে। তার আগের বছর গরুর মাংসের দাম ছিল কেজিপ্রতি ৪৭৫।

গেল বছর রোজায় ভারতীয় গরুর মাংস কেজিপ্রতি ৪২০ টাকা, মহিষের মাংস ৪২০ টাকা, খাসির মাংস ৭২০ টাকা এবং ভেড়া ও ছাগলের মাংস ৬০০ টাকা নির্ধারণ করেছিল ডিএসসিসি। তার আগের বছর রমজানে কেজিপ্রতি দেশি গরুর মাংসের দাম ঠিক হয়েছিল ৪৭৫ টাকা, ভারতীয় গরুর মাংস কেজিপ্রতি ৪৪০ টাকা, মহিষের মাংস ৪৪০ টাকা, খাসির মাংস ৭২৫ টাকা এবং ভেড়া ও ছাগলের মাংস ৬২০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ