আরপিও সংশোধনী নিয়ে কেন এত ‘লুকোচুরি’?

Pub: সোমবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮ ৯:১৮ অপরাহ্ণ   |   Upd: সোমবার, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৮ ৯:১৮ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গত ৩০ আগস্ট কমিশন সভায় সংশোধনের অনুমোদন দিলেও এতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) সংযোজন ছাড়া আর কোন কোন ধারা সংযোজন, সংশোধন, বাদ পড়ছে, তা পরিষ্কার করছে না কমিশন।

আরপিওতে আর কি কি সংশোধনী আনা হচ্ছে তা জানতে পারেননি নির্বাচন কমিশনে কর্মরত সাংবাদিকরা। এছাড়া গত ৩ সেপ্টেম্বর আরপিও সংশোধন প্রস্তাবের কপি আইন মন্ত্রণালয়ে ভেটিংয়ের জন্য পাঠায় কমিশন। আইন মন্ত্রণালয় থেকেও সাংবাদিকরা চেষ্টা করেও জানতে পারেননি আরপিও’র সংশোধনী সম্পর্কে। ইভিএম সংযোজন ছাড়া আরপিওতে আর কি কি সংশোধনী আসছে, তা সাংবাদিকরা জানতে না পারায় দেশের মানুষও আরপিও সংশোধনী নিয়ে অনেকাংশেই অন্ধকারে হাঁতড়াচ্ছেন। আরপিও’র সংশোধনী নিয়ে এত কেন ‘লোকচুরি’।

আরপিও সংশোধনের পর সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

ইভিএম সংযোজন ছাড়া আরপিওতে আর কোন কোন ধারা সংযোজন, সংশোধন, বিয়োজন হচ্ছে তা পরিষ্কার করা হচ্ছে না কেন জানতে চাইলে ইসি সচিব জানান, বিষয়টি তিনি এ মুহূর্তে পরিষ্কার করতে বাধ্য নন।

এর আগে কমিশন সভায় আরপিও সংশোধন প্রস্তাব অনুমোদন শেষে সংবাদ সম্মেলনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছিলেন, ‘ইভিএম ছাড়া আরপিওতে আর কোনও সংযোজন, সংশোধন বা বিয়োজন হবে কিনা তা তিনি জানেন না!’

এরকম পরিস্থিতিতে সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে কমিশন সচিবালয়ের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন ইসি সচিব।

এসময় সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চান- আমরা এবারই প্রথম দেখলাম, আরপিও সংশোধনীর আগে এর কপি গণমাধ্যম পায়নি। এত বড় একটা আইন সংশোধন করা হলো, কিন্তু জনগণ জানতে পারলো না। এত গোপনীয়তা কেন?

সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে হেলালুদ্দীন আহমদ আরও বলেন, ‘আরপিও সংশোধনের প্রস্তাব আইন মন্ত্রণালয়ে ভেটিংয়ের জন্য পাঠানো হয়েছে। ভেটিংয়ে অনুমোদন হলে এটা মন্ত্রিসভায়, পার্লামেন্টে পাস হবে। তখন তো সবাই জানতে পারবেন। এটা কোনো গোপনীয় বিষয় নয়। সবকিছু আগেভাগে জানাতে হবে এমন তো কোনো অভিধান নাই।’

বিগত সময়ে দেখা গেছে, কমিশনের পক্ষ থেকে সংশোধনের যে প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল, তার বাইরে সরকারের পক্ষ থেকে প্রস্তাব তুলে ধরা হয়েছিল-  এমন প্রশ্নে সচিব বলেন, ‘যখন ভেটিং হয়ে আসবে, তখন সব জানতে পারবেন।’

আরপিও সংশোধনীর প্রস্তাব চূড়ান্ত অনুমোদন শেষে সংবাদ সম্মেলনে আরপিওতে ইভিএম ছাড়া আর কি কি সংশোধন থাকছে এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেছিলেন, ‘উল্লেখ করার মতো আর কোনও সংশোধনী নেই।’

তাহলে আরপিওতে কি সংশোধনী একটাই?- এমন প্রশ্নে সিইসি নুরুল হুদা বলেছিলেন, ‘আরও কিছ সংশোধনী আসছে। যেমন… (স্মরণ করতে পারছিলেন না)।’

সংশোধনের সংখ্যাগুলো কত জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তা মনে নেই। বেশি হবে না।’

কমিটি কয়টা সংশোধনীর প্রস্তাব করেছিল আর কয়টা গ্রহণ করেছেন জানতে চাইলে নুরুল হুদা বলেছিলেন, ‘সংশোধনীর প্রস্তাব এনেছিলেন ১৫টার মতো, তবে সবগুলো আমরা নিইনি।’

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1080 বার

আজকে

  • ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ৮ই মুহাররম, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

 
 
 
 
 
সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com