নজরুল আমাদের চেতনার বাতিঘর সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ

Pub: মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ ১০:৩২ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ ১০:৩২ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

স্বাধীনতা সংসদের উদ্যোগে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সোমবার সন্ধ্যা ৬.০০টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে ‘কবি নজরুল আমাদের জাতীয় প্রেরণার উৎস’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।

স্বাধীনতা সংসদের প্রধান উপদেষ্টা ও সাবেক তথ্য সচিব সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদ এর সভাপতিত্বে ও সংগঠনের মহাসচিব সাহেদ আহম্মেদ এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাউথ ইষ্ট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড.আ.ন.ম মেশকাত উদ্দিন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পীরজাদা শহীদুল হারুন, কন্ঠশিল্পী ফেরদৌস আরা, নজরুল একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মিন্টু রহমান, কবি আসলাম সানি, সুপ্রীম কোর্টের এডভোকেট এম.এ হালিম মন্টু, জাতীয় মানবাধিকার সমিতির মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, দৈনিক পাঞ্জেরীর নির্বাহী সম্পাদক রুমি তালুকদার সহ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কবি আবুল বাশার হাওলাদার রচিত ‘একই আকাশের তারা’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, নজরুলের চেতনাকে ধারণ করতে না পারলে আমরা কোনদিনও এগিয়ে যেতে পারবো না। নজরুল শুধু জাতীয় কবি ছিলেন না একজন সফল সৈনিক হিসেবেও জাতীয় জীবনে প্রথম ভারতের স্বাধীনতার কথা বলেছিলেন। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে তিনি কারাবরণ করেছিলেন। তবুও কোনদিনও আপোস করেননি। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে অনেক ¯েœহ ও ভালবাসতেন। তার বিভিন্ন লেখনীতে সে বিষয়গুলো স্পষ্ট ছিল। কিন্তু আমরা কেন দু’জনকে দ্বিধা-বিভক্তি করি এর কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। যারা দ্বিধা-বিভক্ত করেন তারা আসলে কি চান সেটি আমাদের জানা উচিত। নজরুলই জয় বাংলা এনেছিলেন পরবর্তীতে যা আওয়ামী লীগের স্লোগানে রূপান্তরিত হয়েছে। দেশ স্বাধীকার আন্দোলনেও এই স্লোগান ছিল অত্যন্ত জনপ্রিয়। তার শেষ ইচ্ছানুযায়ী ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের মসজিদের পাশেই তাকে শায়িত করা হয়েছে। আমাদের নতুন প্রজন্মকে নজরুলের বিষয়ে বেশী বেশী জানার সুযোগ করে দিতে হবে। আমরা যত নজরুলকে জানবো ততই দেশপ্রেমিক ও আত্মবিশ^াসী হয়ে উঠবো।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, আমরা নজরুলকে যথাযথ ভাবে মূল্যায়ন করতে না পারায় জাতি আজ গভীর সংকটে রয়েছে। নজরুলের চেতনার মধ্যেই দেশের কল্যাণ ও দেশপ্রেম লুকায়িত রয়েছে। নজরুলকে যত বেশী আমরা স্মরণ করবো আমাদের চেতনার বাতিঘর ততই প্রজ্জ্বলিত হবে।

সভা শেষে কন্ঠশিল্পী ফেরদৌস আরাসহ ১০ জনকে নজরুল সম্মাননা পদক প্রদান করা হয় এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নৃত্যানুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1044 বার

 
 
 
 
সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« আগষ্ট    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com