fbpx
 

আমাদের বিচ্ছিন্ন করতে ফেসবুক আইডিগুলো হ্যাক করা হচ্ছে: ভিপি নুর

Pub: Thursday, October 24, 2019 11:11 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন করতে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর।

তিনি বলেছেন, ছাত্রলীগের একদল তথ্য সন্ত্রাসীরা আমাদের ফেসবুক আইডি হ্যাক করেছিল কোটা আন্দোলনের সময়। সে ঘটনায় আমরা জিডি করতে গিয়েও কোনধরণের প্রতিকার পাইনি।

সারা বাংলাদেশে যখন আমাদের নেতৃত্বে ছাত্রসমাজ যখন অন্যায়ের প্রতিবাদে জেগে উঠেছে তখন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য আমাদের ফেসবুক আইডিগুলো হ্যাক করা হচ্ছে। যেন আমরা সাধারণ মানুষের কাছে আমাদের বার্তা পৌছে দিতে না পারি।

বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুক লাইভে ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর এসব কথা বলেন।
ডাকসু ভিপি বলেন, কোন ধরণের হামলা বা নির্যাতন করে আমাদের থামানো যাবে না। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের যেভিত্তি ছিলো সামাজিক সমতা ও ন্যয়ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা। সেই ন্যয়বিচার ভুলন্ঠিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, শহীদ মিনারে প্রাথমিক শিক্ষকদের মহাসমাবেশে পুলিশের লাঠিচার্জে ঘটনা ঘটেছে। আমাদের হৃদয়কে নাড়া দিয়েছে। যে শিক্ষকরা সমাজ গঠনের কাজ করে, যারা একদম রুল লেভেলে ছাত্রদের ভিত্তিদ্বার তৈরি করে দেয় সেই শিক্ষকরা বেতনের দাবিতে শহীদ মিনারে একটি সমাবেশ করতে চেয়েছিল। যদিও তারা শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ করছিল কিন্তু পুলিশ সেখানে লাঠিচার্জ করেছে, বিষয়টা আমাদের খুবই ব্যথিত করেছে।

ভিপি নুর বলেন, পাশাপাশি কয়েকদিন আগে ভোলায় যে ঘটনা ঘটেছে সেটি নিয়ে আমরা খুবই উদ্বিগ্ন, এধরণের ঘটনা কখনই আমাদের জন্য কাম্য নয়। যদি একটা জায়গায় ২-৩জন ব্যক্তি কোন কথা বলে বা কটূক্তি করে, সেটা ওই ২-৩ জন ব্যক্তির দায়ভার কোনো গোষ্ঠী সে দায়ভার গ্রহন করে না। সেরকম ভোলাতে আমাদের নবীকে নিয়ে যদি কেউ কটূক্তি করে থাকে তবে দেশের বিদ্যামান আদালতে তার বিচার চাওয়া উচিত। কিছু মানুষ তাদের আবেগের জায়গা থেকে প্রিয়মানুষকে আঘাত করে কোনো কথা বলা হয় বা পার্সোনালিটিতে আঘাত করা হয়, সেখানে প্রতিবাদ করতে পারে এটিও একটি যৌক্তিক বিষয়।

তিনি বলেন, প্রতিবাদ সমাবেশে যারা আইন শৃঙ্খলার কাজে নিয়োজিত থাকেন যারা জনগণের সেবকের দায়িত্ব পালন করেন, তারা নির্বিচারে গুলি চালাবে এটা কখনোই আমাদের কাছে কাম্য নয়। এটি একটি গণতান্ত্রিক দেশের বৈশিষ্ট্য নয়। সাধারণ মানুষের প্রতি আমাদের একটি আহ্বান থাকবে যে, ফেসবুকে বা বাস্তবে যেকোন তথ্য কে যৌক্তিকভাবে প্রতিবাদ করবেন। যেন আপনাদের কোনরূপ দোষারোপ করতে না পারে।

ডাকসু ভিপি বলেন, ভোলার ঘটনায় আমরা দেখেছিযে, সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প ছড়ানোর অপচেষ্টা চলছে বিভিন্ন মহল থেকে। এখানে বাংলাদেশে ‍মুসলিম হিন্দু বোদ্ধ, খৃষ্টান সকল ধর্মের মানুষের মাঝে যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তাতে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করছে কোন এক ইস্যুকে কেন্দ্র করে। সেজন্য সাধারণ মানুষকে সচেতন থাকতে হবে।

ভিপি নুর বলেন, এই সরকারের নগ্নহস্তক্ষেপের কারণে আদালতে একটা অনাস্থা হচ্ছে। ডাকসুর ভিপি হয়েও একটা পাসপোর্ট পাচ্ছিনা। পাসপোর্টের জন্য সুনানীর দিন ধার্য করা হয় জানুয়ারিতে। আমার লাগে এখন কিন্তু আদালত সুনানী করবে জানুয়ারিতে। কারণ আদালতের স্বাধীনভাবে কাজ করার এখতিয়ার নাই। আমরা দেখেছিযে, বিচারপতিকে বাইরে পাঠানো হয়। অন্য বিচারপতিদের মধ্যে স্বাভাবিকভাবে একটা প্রভাব পরিলক্ষিত হয়।

তিনি বলেন, নুসরাত হত্যা বা বরগুনার যে রিফাত হত্যার সময় আমরা দেখেছিযে, সামাজিক মূল্যবোধের চরম অবক্ষয় ন্যায় বিচার ভুলণ্ঠিত হওয়ার আশংকা যখন মনে হয়েছে তখন কিন্তু রাজপথে সেটি নিয়ে আমরা প্রতিবাদ করেছি। একইভাবে আমাদের ভাই আবরারকে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা দেশের স্বার্থবিরোধী একটি চুক্তিকে সমালোচনা করে সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলায় নির্মমভাবে নির্যাতন করেছে সেটি নিয়ে আমরা কথা বলেছি। আপনারা যদি অনুপ্রাণিত করেন তবে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ কথা বলে যাবে, আপনারা যদি পাশে থাকেন।

Posted by নুরুলহক নুর on Wednesday, October 23, 2019

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ