ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমান এর শোকবার্তা

Pub: মঙ্গলবার, মার্চ ১৩, ২০১৮ ১১:১৬ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, মার্চ ১৩, ২০১৮ ১১:১৬ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

ঢাকা মহানগর উত্তর জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ও তেজগাঁও থানা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন মিলনকে গত ৬ মার্চ ২০১৮ বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ৭ মার্চে রমনা থানা পুলিশ তাকে রিমান্ডে নিয়ে অমানুষিক নির্যাতন চালায়। তিন দিন রিমান্ডে অবর্ণনীয় নির্যাতনের পর মূমুর্ষ অবস্থায় জাকির হোসেন মিলনকে গতকাল কারাগারে পাঠানো হয়। সেখানেই বিনা চিকিৎসায় আজ মিলনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয় (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)। রিমান্ডে লোমহর্ষক নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানিয়ে জাকির হোসেন মিলনের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দূঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমান।

আজ এক শোকবাণীতে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেন, “এটি সন্দেহাতীতভাবে বলা যায়ে যে, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর ঘৃন্য বর্বরতার শিকার জাকির হোসেন মিলন। বিএনপিসহ বিরোধী স্বর বন্ধ করতেই সরকার এখন তারুণের শক্তিকে ধ্বংস করতে উঠেপড়ে লেগেছে। সরকার রাষ্ট্রক্ষমতা ধরে রাখার প্রবল বাসনায় ভয়াবহ দমন-পীড়ণকে আঁকড়ে ধরেছে। আর এজন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে আইন বহির্ভৃত আচরণ করতে সরকার উৎসাহিত করছে। এ কারণেই জাতীয়তাবাদী শক্তির তরুণ নেতাদের বেছে বেছে নির্যাতনে নিষ্পিষ্ট ও জীবনহানি ঘটানো হচ্ছে।
সরকারের অত্যাচারী রুপ এখন বিভৎস আকার ধারণ করেছে। দেশবাসী যেন দস্যুদলের গুহার অন্ধকারে বন্দী। ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করার জন্যই গুম, খুন ও হত্যার আনন্দমেলার আয়োজনে ব্যস্ত সরকার। চারিদিকে যেন রক্তগঙ্গা বইছে। নৈরাজ্যের অভিশপ্ত অন্ধকারে দেশবাসীকে নিমজ্জিত করা হয়েছে। গণতন্ত্রের বিকাশ সভ্যতার মাপকাঠি। বহুদলীয় গণতন্ত্রকে এখন বাংলাদেশ থেকে নিরুদ্দেশ করা হয়েছে। বিরোধীদলশুন্য রাষ্টসমাজ গঠনের অভিপ্রায়ে জনগণের মধ্যে ক্রমান্বয়ে গণতন্ত্রকে অচেনা করার মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়ন চলছে। সমাজের সর্বত্র ভয় আর অজানা আশঙ্কা বিরাজ করছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতেই অমানুষিক শারীরিক নির্যাতনে জাকির হোসেন মিলনকে মৃত্যুর পথে এগিয়ে দেয়া হয়েছে। এই হত্যাকান্ডের মধ্য দিয়ে সরকার গণতান্ত্রিক শক্তির প্রতি এক অশুভ বার্তা পৌঁছে দিলো, তা হচ্ছে সরকারের কর্মকান্ড নিয়ে কেউ যেন আওয়াজ না তোলে। জাকির হোসেন মিলন এর মতো আর কত তরুণের এভাবে জীবন যাবে সেই ভয়ে প্রহর গুণছে অভিভাবকরা। তবে জুলুম, অবিচার, অনাচার বেশিদিন টেকসই হয় না। জুলুমশাহীকে পরাজিত করতে ঐক্যবদ্ধ জনগণ এখন অঙ্গীকারাবদ্ধ। জনগণের প্রবল ¯্রােতের কাছে স্বৈরশাসককে মাথানত করতে হবে।
আমি মরহুম জাকির হোসেন মিলন এর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারবর্গ, আত্মীয়স্বজন ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।”

(এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী)
সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি।

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1167 বার

আজকে

  • ৬ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
  • ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
  • ১১ই মুহাররম, ১৪৪০ হিজরী
 

সোশ্যাল নেটওয়ার্ক

 
 
 
 
 
মার্চ ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
« ফেব্রুয়ারি   এপ্রিল »
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
 
 
 
 
WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com