fbpx
 

এক ফোঁটা রক্তও ঝরেনি তবু ফরমায়েশি রায়

Pub: Wednesday, July 10, 2019 11:26 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি :

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ১৯৯৪ সালে ঈশ্বরদীর জংশন স্টেশনে তৎকালীন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার ট্রেন বহরে হামলার ঘটনায় এক ফোটা রক্তও ঝরেনি, কেউ মারা যায়নি, কেউ আহতও হয়নি। শুধুমাত্র বিএনপির রাজনীতি করার অপরাধে ঈশ্বরদীতে বিএনপির নিরাপরাদ ৪৭ নেতাকর্মীকে ফরমায়েশি রায়ে সাজা দেওয়া হয়েছে।

কারণ সেদিন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বহনকারী ট্রেনে কারা হামলা চালিয়েছিল, কারা গুলি করেছিল তার কোনো সাক্ষী-প্রমাণ পেশ করতে পারেনি। শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ নেতাদের সাক্ষীর ভিত্তিতে এই রায় দেওয়া হয়েছে। তাই এই রায়ে এদেশের সকল মানুষ বিস্মিত। এই মামলায় সাজাপ্রাপ্তদের বীরের বেশে আদালত থেকে ছাড়িয়ে আনা হবে।

আজ বুধবার বিকেলে পাবনা ঈশ্বরদীর সাহাপুর মালিথাপাড়াস্থ বিএনপি নেতা হাবিবুর রহমান হাবিবের নিজ বাড়ি সংলগ্ন মাঠে স্থানীয় বিএনপির সাজাপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে স্বাক্ষাৎ ও রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ দড়ি দেখে সাপ মনে করে। তাই বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করছে। তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, আজ আমরা কেন্দ্রীয় নেতারা সাজাপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের পরিবারের সঙ্গে সহমর্মিতা জানানোর জন্য আসছিলাম। পথে আমাদের পাবনা জেলা যুবদলের নেতাদের গাড়ি বহরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে ছাত্রলীগ। এতে যুবদলের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা যুদ্ধ করে এদেশ স্বাধীন করেছি নিরাপরাদ মানুষকে ফাঁসি এবং যাবৎ জীবন কারাদণ্ড দেওয়ার জন্য না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের ফরমায়েশী রায়ে সাজাপ্রাপ্তদের পাশে কেন্দ্রীয় বিএনপি সব সময় থাকবে। তাই মামলার যাবতীয় ব্যয় দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমান বহন করবেন। সেই জন্য স্থানীয়ভাবে নেতাকর্মীদেরও সাজাপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের পাশে থাকার নির্দেশ দেন।

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা পাবনা জেলা বিএনপির আহবায়ক হাবিবুর রহমান হাবিবের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু বলেন, বর্তমান সরকার স্বৈরাচারী সরকার। ভোট ডাকাত সরকার। ডাকাতের মতো বসে আছে। ঈশ্বরদীর ৪৭ নেতাকর্মীকে রাজনৈতিক কারণে সাজা দিয়েছে। এই রায় সারা দেশে বিএনপির নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ করে তুলবে। এই রায় স্বৈরাচার আওয়ামী লীগ সরকারকে পতন ঘটাবে। এই রায়ের মধ্যে দিয়ে আরেকবার ৯০ গণঅভ্যুত্থান হবে। কারণ আওয়ামী লীগ জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

ভাইস চেয়ারম্যান শাজাহান আলী বলেন, তারেক রহমান সফল এক রাষ্ট্রপ্রতি ছেলে। কয়েকবারের সফল প্রধানমন্ত্রীর ছেলে। তাঁর জন্ম হয়েছে বিদেশে থাকার জন্য না, এদেশ শাসন করার জন্য জন্ম হয়েছে। তিনি আসবেন বীরের বেশে এদেশে আসবেন।

প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস দুলু। এই সময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল মিন্টু, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সৈয়দ শাহিন শওকত, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, কেন্দ্রীয় যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি খন্দকার তাজুল করিম, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান, রাজশাহী জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সাইদ চাদ, সদস্য সচিব বিশ্বনাথ সরকার, পাবনা জেলা বিএনপির সদস্য সচিব সিদ্দিকুর রহমান ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ের সাবেক এমপি আব্দুল বারী সরদার প্রমুখ। সভায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির নেতাকর্মীদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ