fbpx
 

বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর করা খালেদা জিয়ার নামফলক ভাঙলো জবি ছাত্রলীগ

Pub: মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৯ ৭:৩৬ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৯ ৮:৪৮ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) রাতের আঁধারে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নাম সংবলিত নামফলক ভাঙচুর করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কর্মীরা। যেটি জগন্নাথ কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় করার সময় উন্মোচিত হয়েছিল।

সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) রাতে ছাত্রলীগের কথিত কর্মী বিশ্ববিদ্যালয় ঘোষণার নামফলকটি ভাঙচুর করে। এ সময় তারা ‘বাহ্ মারহাবা’ বলে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে।

এ ব্যাপারে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া ঘোষিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বেগম খালেদা জিয়ার নামফলক মুছে ফেলা যাবে না। এর আগেও দুষ্কৃতকারীরা নামফলকটি ভাঙচুর করেছিল কিন্তু ছাত্রদলের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে তা পুনঃস্থাপন করা হয়। এবারও যদি নামফলকটি শিগগিরই পুনঃস্থাপন করা না হয়, তাহলে ছাত্রদল আন্দোলনের মাধ্যমে পুনঃস্থাপনে বাধ্য করবে।’

এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ‘একটি তদন্ত কমিটি করা হবে। তদন্ত সাপেক্ষে যে বা যারা নামফলকটি ভাঙল তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

নামফলকটি পুনঃস্থাপন করা হবে কি-না প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দ্রুতই নামফলকটি পুনঃস্থাপনের ব্যবস্থা করা হবে।’ 

এর আগে ২০১৭ সালের ৮ জুন প্রথমবারের মতো রাতের আঁধারে খালেদা জিয়ার নাম সংবলিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ঘোষণার নামফলক ভেঙে সরিয়ে ফেলা হয়। পরদিন ৯ জুন প্রতিবাদ জানিয়ে ক্যাম্পাসে ছাত্রদল বিক্ষোভ মিছিল করে এবং নামফলক পুনঃস্থাপনের জন্য প্রশাসনকে ২৪ ঘণ্টা আল্টিমেটাম দেওয়া হলে প্রক্টর ড. নূর মোহাম্মদের মধ্যস্থতায় তা পুনঃস্থাপিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৯৫ সালের ২ নভেম্বর বেগম খালেদা জিয়া তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী থাকাবস্থায় জগন্নাথ কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় রূপান্তরের ঘোষণা দিয়ে ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক ভবনের সামনে বিশ্ববিদ্যালয় ঘোষণা ফলক উন্মোচন করেন। ওই ঘোষণার আলোকে ২০০৫ সালের ২০ অক্টোবর জাতীয় সংসদে আইন পাসের মাধ্যমে বিলুপ্ত জগন্নাথ কলেজ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে যাত্রা শুরু করে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ