fbpx
 

ওয়ার্কার্স পার্টি ১৪ দলে ছিল, আছে মেনন

Pub: Friday, October 25, 2019 9:25 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ : সম্প্রতি নিজের একটি বক্তব্য ভাইরাল হওয়া প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ওর মধ্যে অনেক কথা আছে যেগুলো আপনারা ভাইরাল করেননি, যেগুলো আপনারা উল্লেখ করেননি। ওই কথা উল্লেখ করলে আর এই প্রশ্নের সম্মুখিন হতে হতো না।
২৫ অক্টোবর শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জ শহরের জিমখানায় অবস্থিত পার্টি অফিসে বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা কাউন্সিল শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি একথা বলেন।
গত ১৯ অক্টোবর বরিশালে ওয়ার্কার্স পার্টির সম্মেলনে রাশেদ খান মেনন বলেন, গত নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি।
তাঁর ওই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তীব্র নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া হয় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও জোটের অন্য শরিক দলগুলোর মধ্যে। এরপর ২১ অক্টোবর রাতে মোহাম্মদ নাসিমের বাসায় ১৪ দলের জরুরি বৈঠক ডাকা হয়। কিন্তু সেখানে উপস্থিত হননি মেনন। পরদিন ১৪ দলের গোলটেবিল বৈঠকেও যাননি তিনি। অবশেষে ২৪ অক্টোবর আরেকটি জরুরি বৈঠক ডেকে তার বক্তব্যের ব্যাখ্যা জানতে চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়।
রাশেদ খান মেনন দাবি করেন, ওয়ার্কার্স পার্টির বরিশাল জেলার সম্মেলনে তার দেয়া যে বক্তব্যটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে সেটি ছিল খন্ডিত বক্তব্য। তার পুরো বক্তব্য প্রচার না করে আংশিক প্রচার করায় বিভ্রান্তি ও বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে আমার বক্তব্যের সবগুলো যদি উঠে আসতো তাহলে এই প্রশ্নই উঠতো না।
সেই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে ১৪দলের সাথে দূরত্ব তৈরী হয়েছে কি না সংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নাসিম বলেন, ওয়ার্কার্স পার্টি ১৪দলে ছিল, ১৪দলে আছে। এখনো যেহেতু ১৪দল আমাকে চিঠি দেয় তার অর্থ ১৪দলেই আছি।
ভাইরাল হওয়া বক্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়ে ১৪ দলের পাঠানো চিঠি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমার ১৪দলের সমন্বয়কের সাথে কথা হয়েছে আমি চিঠির জবাব দিয়ে দিব। এর আগেও চিঠির বিষয়ে আমি কথা বলেছি সেগুলো পত্রিকায় প্রকাশ পেয়েছে। তার পরেও আমি আমার জবাব দিয়ে দিব।
তিনি বলেন, আমি কি জবাব দেব ইতোমধ্যে ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে বলেছি। কোন কথাই গোপন করে চলিনি।১৪ দলের চিঠির জবাব কিভাবে দেয়া হবে সেটি পার্টির নেতাদের সাথে বসে আলাপ আলোচনা করে দেয়া হবে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ