fbpx
 

শ্রমিক লীগের সম্মেলন শনিবার, আলোচনায় যারা

Pub: Friday, November 8, 2019 9:14 PM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগের সম্মেলন শনিবার (৯ নভেম্বর) । ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে  এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। দীর্ঘ সাত বছর পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই সম্মেলন। সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা পরপরই প্রাণচাঞ্চল্য ফিরেছে আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম এ সংগঠনে।

সম্মেলনের মধ্য দিয়ে নতুন নেতৃত্ব আসবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। ত্যাগী ও স্বচ্ছ পরিশ্রমী নেতৃত্বও চাচ্ছে দলের তৃণমূল। তবে আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড থেকে বলা হচ্ছে বিতর্কিত কোনো নেতার জায়গা হবে না শ্রমিক লীগে। নবীন ও প্রবীনের সমন্বয় এই নেতৃত্ব নির্বাচিত হবে বলে জানিয়েছেন তারা। ১৯৬৯ সালের ১২ অক্টোবর প্রতিষ্ঠা লাভ করে জাতীয় শ্রমিক লীগ। ২০১২ সালের ১৯ জুলাই শ্রমিক লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়।

সম্মেলন ঘিরে শ্রমিক লীগে সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান আকন্দ ২০০৩ সাল থেকে কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি ১৯৯৪ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং ১৯৮৬ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ঢাকা মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি ১৯৯৬ থেকে এখন পর্যন্ত রেলওয়ে শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। হাবিবুর রহমান আকন্দ গাজীপুরের সন্তান।  

সভাপতি পদে আলোচনা রয়েছেন আরেক, সহ-সভাপতি আমিনুল হক ফারুক। তিনি এর আগে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। দুই মেয়াদে ফারুক শ্রমিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। একবার সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন। তিনি সোনালী ব্যাংক সিবিএ’র তিন মেয়াদে সভাপতি এবং ব্যাংক কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। শ্রমিক রাজনীতিতে যুক্ত হওয়ার আগে তিনি মুন্সিগঞ্জ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

জহিরুল ইসলাম চৌধুরীও শ্রমিক লীগের সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছে। তিনিও বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি। এর আগে তিনি জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বর্তমানে ভলিবল ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। শ্রমিক লীগের প্রতিনিধি হিসেবে জহিরুল ইসলাম চৌধুরী তিনবার আইএলও গিয়েছেন। এছাড়াও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শ্রমিকদের নিয়ে আয়োজিত নানা অনুষ্ঠানে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

নওগাঁ-৬ আসনের এমপি ইসরাফিল আলমও রয়েছে আলোচনায়। তিনি ১৬ বছর ঢাকা মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি ঢাকা মহানগর শ্রমিক লীগের দপ্তর সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও শ্রমিক লীগের সভাপতি পদে আলোচনায় আছেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম।

সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় রয়েছেন। শ্রমিক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খান সিরাজুল ইসলাম। এর আগে তিনি শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির এজিএস এবং কেন্দ্রীয় সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় রয়েছেন আরেক কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সফর আলী। ১৯৮৪ সালে তার সহ-সম্পাদক হিসেবে শ্রমিকলীগে যাত্রা শুরু। এরপর তিনি শ্রমিক লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। ছাত্রজীবনে তিনি চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন।

শামসুল আলম মিলকী তিনি শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক। শ্রমিক লীগের শিক্ষা সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও তিনি রাজউক শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং টঙ্গিবাড়ি থানা আওয়ামী লীগের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহমেদ পলাশও শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় রয়েছেন। পলাশ ছাত্রজীবনে ফতুল্লা থানা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি ফতুল্লা আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সভাপতি, ইউনাইটেড ফেডারেশন অফ গার্মেন্টস ওয়ার্কার্সের কেন্দ্রীয় সভাপতি।

তরুণ নেতাদের মধ্যে আলোচনায় রয়েছেন

যুব শ্রমিক লীগের আহবায়ক আবদুল হালিম। তিনি অগ্রণী ব্যাংক সিবিএ’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অফ লেবার স্টাডিজ বিলস এর সদস্য। তিনি ফেনীর সন্তান। 

সর্বশেষ ২০১২ সালে জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পান নারায়ণগঞ্জের শ্রমিক নেতা শুকুর মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আছেন জনতা ব্যাংক ট্রেড ইউনিয়নের নেতা সিরাজুল ইসলাম। এই সময়ে ৪৫টি সাংগঠনিক জেলার কমিটি করা হয়েছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ