fbpx
 

আপনাদের এই আদালতের মুখোমুখি হতে হবে: দুদু

Pub: বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০ ৫:৫৫ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

দেশে সুবিচার নাই। গায়ের জোরে বেগম খালেদা জিয়াকে আটকে রাখা হয়েছে মন্তব্য করে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ‘এই সরকারকে বলি পালানোর পদ পাবেন না। কই যাবেন? বার্জেনিয়ায় যাবেন? লন্ডন যাবেন? আমাদের দেশেই থাকতে হবে। পালিয়ে যাবেন কই? আপনাদের এই আদালতের মুখোমুখি হতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দল কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এ কথা বলেন।  

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘দেশে যদি আইনের শাসন থাকতো তাহলে সুবিচারের প্রশ্ন আসতো না। দেশে যদি গণতন্ত্র থাকতো তাহলে সুবিচারের প্রশ্ন আসতো না। দেশে মুক্তিযোদ্ধা যে কারণে হয়েছিল তার চেতনা থাকলে তাহলে সুবিচারের প্রশ্ন আসত না। বাংলাদেশকে সারা বিশ্বের কাছে স্বৈরতান্ত্রিক দেশ হিসেবে গণ্য করেছে এই সরকার।’

হাইকোর্টের রায়ের কথায় বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান বলেন, ‘বেগম জিয়ার মুক্তির দরকার। গায়ের জোরে তাকে আটকে রাখা হয়েছে। জোর যার মুল্লুক তার। আমরা একটা বন্য সমাজে বসবাস করছে।’

ছাত্রদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, ‘এই সরকারের সময়ে বাকস্বাধীনতা নাই। সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নাই। রাস্তায় দাঁড়িয়ে মানুষ কথা বললে এদিক-ওদিক তাকিয়ে কথা বলতে হয়। মোবাইলে কথা বললে, বলে ভাই বাড়ি আসেন কথা বলবো। এই হলো অবস্থা। ভয়ংকর একটা পরিস্থিতিতে আমরা বসবাস করছি।’

দুদু বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার থাকলেও সহজে বিএনপি সরকার আসবে। আওয়ামী লীগ যতোই মনে করেন তারা অনন্তকাল ক্ষমতায় থাকবে। তাহলে তো পাকিস্তান থাকতো, বৃটিশরা থাকতো। বেগম জিয়াও প্রধানমন্ত্রী হবে একদিন। বিএনপিও ক্ষমতায় আসবে।’

উদাহরণ টেনে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান বলেন, ‘মহিলারা যখন ভাত রান্না করে তখন মার দেখলেই বুঝতে পারে। তারপরও ২-১টা ভাত টিপে কনফার্ম হওয়ার জন্য। হাড়ির সব ভাত টিপতে হয় না। তাই এই সরকার কেমন সরকার তা ১-২টা টিপলেই বোঝা যায়। কিছুদিন আগে আমরা দেখলাম সম্রাট একটা ভাত, এখন পাপিয়া। একটু টিপ দিলে বোঝা যায় এই সরকার কেমন সরকার।’

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি কথায় তিনি বলেন, ‘আজকে ছেড়ে দেন। তার কাছে জান। মাফ চাইতে বলবো না। কারণ বেগম খালেদা জিয়া আগেই আপনাকে মাফ করে দিয়েছে। অনেক বড় হৃদয় তাঁর। তা নিয়ে আপনি হাসাহাসি করছেন। এটা ঠিক না।’

এই সময়ে তিনি বলেন, ‘সরকার দলীয় সাধারণ একটা কর্মীর যে টাকা আছে তা একটা ব্যাংকেও নেই। আর এই মেয়েটি যদি এই দল না করতো তাহলে এতো অদপতন হতো না। দল তাকে (পাপিয়া) সাম্রাজ্যের মত তৈরি করেছে। আর সম্রাট তো মহাসম্রাট। এই যদি সাধারণ পর্যায়ের অবস্থা হয়। তাহলে উপরের দিকে উঠলে কি অবস্থা দেখব আমরা।’

নেতাকর্মীদের কথা টেনে তিনি বলেন, ‘বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান পিন্টু। কৃষক দলে আমি এক নম্বর, সে দুই নম্বর। শুধু একটা দল করার জন্য পিন্টু এখন ফাঁসির আসামি। আমাদের ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব। জেল খেটেই যাচ্ছেন। একটা ছাত্র নেতার নামে ৩০০ মামলা, এটা কল্পনা করা যায়। এই যে মাহামুদুর রহমান মন্না- একাদিক বার ঢাকসুর ভিপি। অনেক আন্দোলন করছেন। জীবনটাই উৎসর্গ করছেন দলের সাথে। হাফিজ ভাই, মিলন ভাই, নবীউল্লা নবী এদের জেল আর বাসা আলাদা করে দেখার অস্তিত্ব নেই। তারা মনে করেন, আজ বাসায় ঘুমাচ্ছি তাহলে কালকে জেলখানায় ঘুমাবো।’

সংগঠনটির সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন হানিফের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আ ন ম এহসানুল হক মিলন, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সম্পাদক হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।

Hits: 144


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ