fbpx
 

ভারতের সঙ্গে আমাদের রক্তের বন্ধুত্ব, মোদী অবশ্যই আসবেন: নাসিম

Pub: রবিবার, মার্চ ১, ২০২০ ৮:৪৯ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফর নিয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘ভারত আমাদের বন্ধু, রক্তের মধ্যে দিয়ে এই বন্ধুত্ব সৃষ্টি হয়েছে, মুক্তিযুদ্ধের সময়। তাই আমরা মনে করি- এই মুজিববর্ষে অবশ্যই ভারতের প্রধানমন্ত্রী (মোদী) আসবেন, ভারতের সমস্ত বন্ধুপ্রতীম নেতা আসবেন ইনশাল্লাহ।’

রবিবার (১ মার্চ) ঐতিহাসিক মুজিববর্ষে ‘শেখ হাসিনার নির্দেশ, নারী-শিশু নির্যাতনে, রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ’ শীর্ষক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশের আয়োজন করে কেন্দ্রীয় ১৪ দল।

১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, ‘স্বাধীনতার মহানায়কের জন্মশতবার্ষিকী পালন করার জন্য আমরা ভারতের প্রধানমন্ত্রীসহ ভারতের বন্ধুপ্রতীম নেতৃবৃন্দকে আমরা আমন্ত্রণ জানিয়েছি। তখন একটি মহল দিল্লির একটি দুঃখজনক ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়।’

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ঘোলা পানিতে কোনো মাছ শিকার করতে দেয়া হবে না। আমরা ভারতের প্রাইমিনিস্টারকে দাওয়াত দিয়েছে, প্রণব মুখার্জিকে দাওয়াত দিয়েছি,  সোনিয়া গান্ধীকে দাওয়াত দিয়েছি। তারা আসবে ইনশাল্লাহ।  কোনো সাম্প্রদায়িক শক্তি বাধা দিয়ে রুখতে পারবে না।

বিএনপির প্রতি নতুন বার্তা দিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘বিএনপির বন্ধুদেরকে বলবো ভুল স্বীকার করে এবারের সারা জাতির সঙ্গে আপনার বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষিকী পালন করুন। বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করলে আপনাদের পাপ কিছুটা হলেও বাংলার জনগণ ক্ষমা করতে পারে।’

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘যারা বঙ্গবন্ধুকে অশ্রদ্ধা করেছে, বঙ্গবন্ধুর শোক দিবসে কেক কেটেছে- সেই বিএনপি-জামায়াতে সঙ্গে কোনও দিন আপোষ হবে না ইনশাল্লাহ। ঐ স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিকে আমরা বলতে চাই- যদি লজ্জা থাকে, শরম থাকে নিজেদের অপরাধ স্বীকার করে জন্মশতবার্ষিকী পালন করুন।’

নারী ও শিশু নির্যাতন আইন আরও কঠোর করে মৃত্যুদণ্ড বিধান রাখার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে যে আইন আছে তা আরো কঠোর করে মৃত্যুদণ্ড বিধান রাখার দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে মৃত্যুদণ্ডের আইন আরও দ্রুত সময় ব্যস্তবায়ন করে শাস্তি দিতে হবে। তা না হলে এসব নির্যাতন কারীরা আরও সুযোগ পেয়ে যাবে।  শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা এ দেশে নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ করতে পারবে। যারা নির্যাতন করে তারা খুনি। তাই নারী ও শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে যে আইন আছে তা আরো কঠোর করে মৃত্যুদন্ড বিধান রেখে দ্রুত ব্যস্তবায়ন করতে হবে।’

Hits: 69


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ