ত্বকের যত্ন ও সৌন্দর্যের কিছু কথা

Pub: শুক্রবার, জুন ১, ২০১৮ ৫:১০ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: শুক্রবার, জুন ১, ২০১৮ ৫:১০ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মানুষ সুন্দরকে পছন্দ করে। নিজেকে সবার মধ্যে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করার ইচ্ছা থেকেই মানুষ সৌন্দর্য চর্চা করে। প্রসাধনী দেহের বাইরের পরিচর্যা। সৌন্দর্যের মূল উৎস দেহের ভেতর। তাই বাইরের পরিচর্যার সঙ্গে দেহের ভেতরের পরিচর্যাও প্রয়োজন। কিছু অভ্যাস বা সতর্কতাই আমাদের দেবে সুস্থ, সুন্দর ও আকর্ষণীয় চেহারা। তাই ত্বকের যত্নে এমন কিছু সতর্কতা আমাদের জানাছেন রেসিডেন্ট মেডিকেল অফিসার ফারহানা মোবিন, গাইনি এন্ড অবস্, স্কয়ার হসপিটাল, ঢাকা।

সৌন্দর্যের অন্যতম প্রধান শর্ত উজ্জ্বল-মসৃণ ত্বক। এ ত্বককে সুন্দর রাখার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি (প্রতিদিন অন্তত দেড় লিটার) পান করুন। যত বেশি পানি পান করবেন, আপনার রক্তসঞ্চালন তত বেশি পরিষ্কার ও দ্রুত হবে। ফলে দেহের প্রতিটি অঙ্গে রক্ত পৌঁছাবে। দেহের প্রতিটি অঙ্গ সঠিকভাবে কাজ করবে। ফলে ত্বক হবে সতেজ।

মানুষের মাথা ও মুখে স্নায়ু শিরা-উপশিরার পরিমাণ আয়তন অনুযায়ী অনেক বেশি। তাই যত বেশি পরিমাণে দেহের অন্য অঙ্গগুলো সচল থাকবে, তত বেশি পরিমাণে মস্তিষ্ক কাজ করবে, ত্বক উজ্জ্বল হবে।

তাই বেশি করে পানি ও তরল খাবার খান। তবে সফট ড্রিংকস বা কোমল পানীয় বর্জনীয়। কারণ কোমল পানীয়ে উচ্চ ক্যালরি রয়েছে।

কিছু টিপস:

রোদে ক্ষতিকর আলট্রাভায়োলেট রশ্মি থাকে, যা ত্বকের জন্য ভীষণ ক্ষতিকর। তাই রোদ থেকে দূরে থাকুন।

আমাদের ত্বকে মৌমাছির কুঠুরির মতো অসংখ্য ছিদ্র রয়েছে, যা খালি চোখে দেখা যায় না। দেহে তৈলাক্ত খাবারের পরিমাণ বেড়ে গেলে ত্বকের ছিদ্র দিয়ে তেল নিঃসরণ হয়। এ তেলের সঙ্গে ধুলা জমলে ত্বকের ছিদ্রগুলো বন্ধ হয়ে যায়। তখন মুখে ব্রণ, মেছতাসহ বিভিন্ন ধরণের দাগের সৃষ্টি হয়। তাই দেহের গড়ন বুঝে তৈলাক্ত খাবারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

ত্বকের ঔজ্জ্বল্যের জন্য প্রচুর পরিমাণে কাঁচা সবজি, মৌসুমি ফল, শাক ও তেতো খাবার খান। কালোজিরা, মেথি, পুদিনার পাতা, চিরতার রস, লেটুসপাতা ত্বকের কুঁচকে যাওয়া এবং বলিরেখা দূর করে। তাই সপ্তাহে অন্তত এক দিন এ খাবারগুলো গ্রহণের অভ্যাস করুন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1144 বার