fbpx
 

ঈদের আগেই জেনে নিন মেকাপ সামগ্রীর দাম

Pub: রবিবার, মে ২৬, ২০১৯ ৭:৪৪ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আর কিছু দিন পরেই ঈদ। আর ঈদ মানেই সাজ পোশাকের প্রস্তুতি। তাছাড়া সব ঋতুতেই নারীরা মেকআপ নিয়ে থাকেন। অফিসে যাওয়ার সময় বা কোনো পার্টিতে সাজার জন্য বা কোন উৎসব-অনুষ্ঠানে হালকা বা ভারী সাজের জন্য সবকিছুতেই দরকার হয় মেকআপের। এই মেকআপের জন্য আমরা যেসব কসমেটিকস বা মেকআপ কিটস কিনে থাকি তার সঠিক দামদরটা জানা কিন্তু খুব জরুরি। নিজের ত্বকের ধরন এবং বাজেট নির্ধারণ করে তবেই কসমেটিকস কেনা উচিত। ভালো ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে লরিয়েল একটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড। নারীদের পছন্দের তালিকায় এই ব্র্যান্ডটি থাকে। গুণমানের দিক থেকেও এটি বেশ ভালো। অন্যান্য আরও কিছু ভালো ব্র্যান্ডের কসমেটিকসের নাম এবং তার দরদামও জেনে রাখুন-কোনটার কতো দাম।

মুখের মেকআপ

. লরিয়েল ফাউন্ডেশনে পাওয়া যাবে ৪৫০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা, ফেস পাউডার সিঙ্গেল ৩০০-৪৫০ টাকা, ডবল ৮০০-১২০০ টাকা, পেনকেক ৫৫০-১৫০০ টাকা পর্যন্ত। রেভলন ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশনের দাম পড়বে ২৫০-১২০০ টাকা পর্যন্ত।

. ফেসপাউডার সিঙ্গেল ২৫০-৩০০ টাকা, ডবল ৮০০-১০৫০ টাকা। পেনকেকের দাম পড়বে ৪৫০-১৪০০ টাকা। ল্যানবাম ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশন ২৫০-৯০০ টাকা, ফেসপাউডারের দাম পড়বে ২০০-৭৮০ টাকা। নিভিয়া ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশনের দাম পড়বে ২০০-৯০০ টাকা, ফেসপাউডার ২০০-৫০০ টাকা।

. পেনকেক ৪০০-৬০০ টাকা, ল্যাকমি ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশন দাম পড়বে ১৮০-১১০০ টাকা, ফেসপাউডারের দাম পড়বে ২২০-৪৫০ টাকা। জর্ডানা ফাউন্ডেশনের দাম পড়বে ৪০০-১৬০০ টাকা, ফেসপাউডার ২৫০-৫৭৫ টাকা, পেনকেক ৪০০-৯০০ টাকা। ওলে ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশন পাওয়া যাবে ১৫০-৬০০ টাকার ভিতর,

. ফেসপাউডারের দাম পড়বে ২৫০-৬৫০ টাকা। ম্যাক্সফ্যাক্টর ব্র্যান্ডের ফাউন্ডেশনের দাম পড়বে ২৫০-১৮০০ টাকা, ফেসপাউডার পাওয়া যাবে ২০০-৮০০ টাকার মধ্যে। এ-তো গেল মুখের মেকআপ সামগ্রী।

. এর সঙ্গে আরও যুক্ত হয় চোখের সাজ, ঠোঁটের সাজ, ভ্রু এবং ঠোঁটের আউটলাইন সাজ। নারীদের সবারই পছন্দের তালিকায় থাকা খুব পরিচিত কিছু ব্র্যান্ডের লিপস্টিক, আইলাইনার, কাজল রয়েছে। খুব সহজেই যেকোনো মার্কেট থেকে এসব কসমেটিকস সামগ্রী সংগ্রহ করা যায়।

ঠোঁটের মেকআপ

আধুনিক মেয়েদের অত্যাবশ্যকীয় প্রসাধন সামগ্রী হচ্ছে লিপস্টিক। বর্তমান যুগের মেয়েদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে বিশ্বের নামকরা কসমেটিকস কোম্পানিগুলো ম্যাট, গ্লসি, স্টিক, লিকুইড ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের এবং নানা রঙের লিপস্টিক তৈরি করে থাকে। বিশ্বখ্যাত কয়েকটি ব্র্যান্ডের লিপস্টিকের চলতি বাজার দাম দেয়া হলো-

. জর্ডানা (ইউএসএ) নরমাল ১১০ টাকা এবং পেন্সিল ২২০ টাকা, পারসোনি নরমাল ১০০ টাকা এবং পেন্সিল ২২০ টাকা। নিওর নরমাল ১১০ টাকা এবং পেন্সিল ২১০ টাকা, ল্যাকমে (ইন্ডিয়া) ১৮০ থেকে ২২০ টাকা। লরিয়েল ৩৮০ থেকে ৪০০ টাকা। জ্যাকলিন ১২০ টাকা, রেবলনের স্টিক লিপস্টিকের দাম পড়বে ৪৫০ টাকা।

উল্লিখিত ব্র্যান্ডের লিপস্টিকগুলো ম্যাট এবং গ্লসি দুই ধরনেরই পাওয়া যায়। এগুলো ছাড়াও বাজারে লিকুইড লিপস্টিকও পাওয়া যায় যেগুলোর দাম পড়বে ৪৫০ টাকার উপরে। বিদেশি ব্র্যান্ড ছাড়াও সাধারণ কিছু লিপস্টিকও বাজারে পাওয়া যায় যেগুলোর দাম ৬০-৮০ টাকার মধ্যে।

তবে ঠোঁট যেহেতু মানুষের সেনসেটিভ এবং সৌন্দর্যের অপরিহার্য অংশ তাই ভালো ব্র্যান্ডের লিপস্টিক ব্যবহার করাই বুদ্ধিমানের কাজ।

চোখের মেকআপ

চোখের সাজের জন্য কাজল, আইলাইনার, আইশ্যাডো না হলেই নয়। এগুলোর দাম পরবে ব্র্যান্ড অনুযায়ীঃ ম্যাভিলন প্লেসল কাজল ৩৫০-৪০০ টাকা, নিওর কাজল ৯০-৩০০ টাকা, মি. অ্যান্ড মিসেস কাজল ১২০-৩০০ টাকা, জর্ডানা কাজল ৬০-২৫০ টাকা, মনিয়ান কাজল ৬০-১৫০ টাকা, ম্যাক্সটাস আইশ্যাডো ৩৫০-১৬০০ টাকা, মিসরোজ আইশ্যাডো ২৫০-১৪৫০ টাকা।

হাতের নখ সাজাতে চাই রং বেরঙের নেইলপলিশঃ নেইলপলিস পাওয়া যাবে জর্ডানা, ল্যাকমে, মিস্টার অ্যান্ড মিসেস, লরিয়েল কোম্পানির। এগুলো পাওয়া যাবে ১২০ থেকে ৪৫০ টাকায়। আজকাল বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মিনি সাইজের নেইল পলিশ ৪০-৫০ টাকার মধ্যেও পাওয়া যায়।

এছাড়া মার্কেটে আরও অনেক ব্র্যান্ডের সামগ্রী পাওয়া যায়। তবে সস্তা এবং দেখতে আকর্ষণীয় হলেও সে সব পণ্যের গুণাগুণ এবং মানের বিচার করে ব্যবহার করা উচিত। এতে নিজের ত্বকের নিরাপত্তার বিষয় জড়িত। একবার ত্বকের ইনফেকশন হলে তা সেরে উঠতে অনেক সময় এবং টাকা খরচের বিষয়ও রয়েছে। সুতরাং সচেতনতা অবলম্বন করে রূপসজ্জা সামগ্রী ক্রয় করতে হবে।

কোথায় পাবেন

বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক থেকে শুরু করে নিউমার্কেট, গাউসিয়া, চাঁদনী চক, ধানমন্ডির বিভিন্ন বিপনী বিতান, মিরপুর, মৌচাক, মালিবাগ, এলিফ্যান্ট রোডের বিপনি বিতানগুলোতে পাবেন নানা ব্র্যান্ডের মেকআপ কিটস।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ