জাতিসংঘের ৪৮তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলায় বক্তব্য রাখেন খালেদা জিয়া

Pub: Saturday, September 12, 2020 3:01 AM
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জাতিসংঘের ৪৮তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বাংলায় বক্তব্য রাখেন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ১৯৯৩ সালে জাতিসংঘের ৪৮ তম সাধারণ অধিবেশনে প্রথমবারের মত বাংলায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

১৯৯৩ সালের ১লা অক্টোবর, শুক্রবার, বিকেল ৩টা ৩০ মিনিটে গুয়েনার ইনসেনালির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের ৪৮ তম সাধারণ অধিবেশনের ১৩ তম প্লানারি মিটিংয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া তার ঐতিহাসিক বক্তব্য প্রধান করেন। উক্ত বক্তব্যে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া জাতিসংঘকে বিশ্বের জাতিগত ঐক্যের সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য প্লাটফর্ম হিসেবে বর্ণনা করে বিশ্বসংহতির লক্ষ্যে তার উন্নয়ন পরিকল্পনা উপস্থাপন করেন।

প্রথমেই তিনি জাতিসংঘের তৎকালীন মহাসচিব বুট্রোস ঘালিকে অভিনন্দন জানান। এরপর জাতিসংঘে অংশগ্রহণকারী ৫টি নতুন রাষ্ট্র এন্ডোরা, ইরিত্রিয়া, চেক রিপাবলিক, মনোকো, সাবেক যুগোস্লাভিয়ার মেসোডোনিয়া ও স্লোভোকিয়াকে অভিনন্দন জানান।

তিনি তার বক্তব্যে যেসব বিষয় তুলে ধরেন তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে বিশ্বব্যাপী উদারনৈতিক গণতন্ত্রের বিকাশ, বিশ্ব পরিমণ্ডলে অর্থনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক উন্নয়ন ও বিকাশ, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আইনের শাসন, জাতিসমূহের সার্বভৌমত্ব, মানবাধিকার, প্রযুক্তির উন্নয়ন ও বিকাশ, বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তন ও মোকাবেলা, বিদ্যমান জ্বালানির ব্যবহার কমিয়ে বিকল্প জ্বালানির সন্ধান, দারিদ্র বিমোচন, স্বাস্থ্যসেবা, দক্ষিন পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক সংহতিতে সার্কের ভূমিকা, প্রতিবেশি দেশ ভারতের সাথে অভিন্ন নদী সঙ্কট নিরসন ও ফারাক্কা সমস্যার সমাধান, পরিবেশ দূষন এবং মোকাবেলা, ইউএনএইচসিআর (UNHCR) এর আওতায় মায়ানমারের দুই লাখ পঞ্চাশ হাজার শরণার্থী বাংলাদেশ প্রবেশ, বসনিয়া সঙ্কট, জাতিসঙ্ঘের শান্তিরক্ষী মিশনে বাংলাদেশী সেনাদের ভূমিকা, ফিলিস্তিন সঙ্কট, ডাল-ভাত কর্মসূচী ইত্যাদি।

তিনি তার বক্তব্যে শেষে ১৩ বছর পূর্বে জাতিসংঘের ১১তম বিশেষ অধিবেশনের তৃতীয় প্লানারি মিটিংয়ে তৎকালীন ৩য় বিশ্বের নেতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের দেয়া কিছু ঐতিহাসিক দূরদর্শী বক্তব্য তুলে ধরেন।

জাতিসংঘের ১১ তম বিশেষ অধিবেশনের ৩য় প্লানারি মিটিংয়ে প্রয়াত জিয়াউর রহমানে বলেছিলে, ‘আমাদেরকে অবশ্যই সমকালীন বিশ্বের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। আমাদেরকে দৃঢ় এবং সদূরপ্রসারী পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। আমরা যদি সনাতন ধারা এবং চিন্তাচেতনার মধ্যে আটকে থাকি তাহলে আমাদের পক্ষে চ্যালেঞ্জসমূহ মোকাবেলা করা সম্ভবপর হবে না। মানবজাতির প্রতিটি ক্ষেত্রে উন্নত এবং মহৎ জীবনের জন্য আমাদের সবাইকে একত্রে কাজ করতে হবে।’

দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বলেছিলেন, জিয়াউর রহমানের কথাগুলো আজকের বিশ্বের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
নিউজটি পড়া হয়েছে 10035 বার

Print

শীর্ষ খবর/আ আ