fbpx
 

এই মুহূর্তে প্রয়োজন একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন

Pub: মঙ্গলবার, এপ্রিল ৩, ২০১৮ ৮:৩৭ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, এপ্রিল ৩, ২০১৮ ৮:৩৭ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সায়েক এম রহমান : আজ দেশ ও জাতির সব চাইতে কঠিন সময়ে, রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, দেশের শতকরা ৯০জনের উপরে মানুষের মতামত একটি নিরপেক্ষ নির্বাচন। অবৈধ সরকার কিন্তুু নিরপেক্ষ বুঝতে রাজী না। অবৈধ সরকার আইন করে “নিরেপক্ষ” শব্দটি পর্যন্ত গুম করে ফেলেছে। সব বুঝেও না বুঝার ভান করছে। আবার রাজধানী ঢাকা সহ সারা দেশের কোথাও কোন শান্তিপূর্ণ কোন সমাবেশ, মিছিল মিটিং, এমনকী মানব বন্ধন পর্যন্ত করতে দিচ্ছে না। নির্যাতন, গ্রেপ্তার একাত্তরের পাক-হানাদারদের বর্বরতা ও নগ্নতাকেও হার মানিয়ে গেছে। এই মুহুর্তে সাধারন মানষের প্রত্যাশা ও দাবী হলো, গনতন্ত্রের প্রতিক দেশ মাতা বেগম খালেদা জিয়া ও সকল রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি এবং গণতন্ত্র ফিরে পাওয়া ও নিরপেক্ষ নির্বাচন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, এমতা অবস্হায় কিভাবে কর্মসূচী দিলে সরকার বাধ্য হবে?
ইতিহাস বলে যখন গণন্ত্রের নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের সব পথ বন্ধ হয়ে যায় তখন আর নিয়ম নীতি মেনে জনতার দাবী আদায় করা যায় না। তখন নিজ নিজ বিবেক কে প্রশ্ন করতে হবে, আইন কার জন্য? তখন বিবেকই বলে দিবে আইন তো মানুষেরই জন্য। মানুষই তৈয়ার করবে মানুষের আইন। মানুষের অধিকার, মানুষের স্বাধীনতা, মানুষের সার্বভৌমত্ব, মানুষের বুকের পাটা দেখিয়ে আদায় করতে হয়। অধিকার কেউ কারো ঘরে তুলে দেবে না।

ইতিহাস আমাদেরকে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে গেছে, ৪৭ সালে বৃটিশের আইন মানলে, আমরা পূর্ব পাকিস্তান পেতাম না। ৫২ সালে আইন মানলে, আমরা আজ আমাদের বাংলা ভাষা পেতাম না। ৭১ এর আইন মানলে মহান মুক্তিযুদ্ধ হতো না এবং বাংলাদেশ ও পেতাম না। ৯০ এ আইন মানলে স্বৈরাচার এরশাদের ও পতন হতো না এবং ৯৬সালে আইন মানলে এদেশের মানুষের তত্ত্বাবদায়ক সরকারের দাবী ও পূরণ হতো না।

অতএব এই মুহুর্তে আজকের আন্তজাতিক স্বীকৃত স্বৈরশাসকের বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম অতিব প্রয়োজন। আর ব্রিইফ নিন্দা ও কালক্ষেপন নয়। কেউ কাউকে ক্ষমতা দিবে না, জনগনের ক্ষমতা জনগনই আদায় করতে হয়। এ যাবৎ দুনিয়াতে যত গণতান্ত্রিক আন্দোলন সফল হয়েছে তা কেবল জনগন ও নিজ নিজ দলের ইস্পাত কঠিন রাজপথের আন্দোলনেই সফল হয়েছে।
সায়েক এম রহমানের ফেইসবুক থেকে ।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ