কারাবন্দী হাবিব উন নবী খান সোহেলের মেয়ের আবেগঘন ফেসবুক স্ট্যাটাস

Pub: শুক্রবার, জুন ৭, ২০১৯ ১১:১৯ অপরাহ্ণ   |   Upd: রবিবার, জুন ৯, ২০১৯ ১২:১৪ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা :
নারায়ণগঞ্জ কারাগারে বন্দী আছেন বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সাবেক ছাত্রনেতা হাবিব উন নবী খান সোহেল। ঈদের দিন দুই কন্যা সূচনা ও মাটিকে নিয়ে নারায়ণগঞ্জ কারাগারে সোহেলকে দেখতে যান তার স্ত্রী। সেখান স্ত্রী ও দুই কন্যাকে নিয়ে এক আবেগঘন পরিস্থিতি তৈরী হয়। কারাগার থেকে বেরিয়ে বাবাকে নিয়ে আবেগঘন ফেসবুক স্ট্যাটাস দেয় সোহেলের কন্যা সূচনা।

পাঠকের জন্য স্ট্যাটাস হুবহু তুলে ধরা হলো-‘ডেপুটি জেলারের রুদ্ধ কক্ষে মিষ্টি একটা হাসি নিয়ে বাবা ঢুকলেন … পরনে শুভ্র পাঞ্জাবি … চুল ব্যাকব্রাশ … মাথায় হাত বুলিয়ে বললেন – মা , ঈদ মোবারক , এবার তোমাদের কিছুই দেয়া হলো না , পাওনা রইলো সব কেমন ? … মার দিকে তাকিয়ে কি যেন একটা হাতে গুজে দিলেন … অবাক ব্যাপার ! একটা সুন্দর লাল পাড়ের জামদানি ! জেলের ভেতর অর্ডার দিয়েছে মাকে ঈদে দিবে বলে … মার চোখের কোণে কি যেন ছলছল করছে … এমন একটা মানুষকে একদিন ভালবেসে নাকি হাজার বছর অপেক্ষা করা যায় …। আজ আমাদের রুদ্ধ ঈদ … তিনজন এপাড়ে , আত্না ওপাড়ে …। সকাল থেকে এখানেই আছি … নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগার … আকাশটাও অঝর ধারায় কেঁদে চলছে … আমরা তাকিয়ে আছি সেদিকে … । বৃষ্টির ফোঁটায় চোখের পানি আড়াল হয়ে যাচ্ছে তিনজনের … খারাপ না ব্যাপারটা …সবাইকে একগুচ্ছ বিপ্লবী ঈদের শুভেচ্ছা । সূচনা (হাবিব উন নবী খান সোহেলের মেয়ে)।

এভাবেই ঈদের দিন নারায়নগঞ্জ জেলা কারাগারে বন্দী বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলের সাথে তার পরিবারের সদস্যরা দেখতে এসে তার মেয়ে সূচনার আবেগঘন স্ট্যাটাস ।

প্রসঙ্গত : গত ৫ ফেব্রুয়ারি হাবিব উন নবী খান সোহেলকে তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছিল বিএনপি। পরে তার মেয়ে জানান, তিনি নিরাপদ আছেন। এরপর দীর্ঘদিন আত্মগোপনে ছিলেন ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সোহেল। সবশেষ খালেদা জিয়া কারাগারে যাওয়ার পর তার মুক্তির দাবিতে বেশ কয়েকটি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন সোহেল।

সেখানে বিএনপির মানববন্ধন চলাকালে সোহেলকে আটকের চেষ্টা করে গোয়েন্দা পুলিশ। তবে সবার চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে যান তিনি। এরপর আর জনসমক্ষে তাকে দেখা যায়নি। সব শেষ গত ১ সেপ্টেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর জনসভায় তিনি বক্তব্য দেন। এরপর আবার চলে যান আত্মগোপনে। এর ১৭ দিন পর ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানের গোল চত্বর থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

ছাত্রদলের সাবেক এ সভাপতি বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা দক্ষিনের সভাপতি সোহেলের বিরুদ্ধে ১৪৩টি মামলা রয়েছে।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ