ডা: শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরীর মত বিনিময় সভা

Pub: মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ ৫:৫১ অপরাহ্ণ   |   Upd: মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ ৫:৫১ অপরাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেট জেলা আইনজীবী ফোরামের সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে ডা: শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরীর মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার দুপুর ২টায় ২নং বার হলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সিলেট জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি এ্যাডভোকেট এ টি এম ফয়েজের সভাপতিত্বে ও ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান সাবুর পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন-কেন্দ্রীয় বি এন পির সদস্য ও সিলেট মহানগর বি এন পির সাবেক আহবায়ক ডা: শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন বক্তব্য রাখেন, এড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী, এড. এম নুরুল হক, এড. মো আক্তার হোসেন খান, এড. জুবায়ের আহমদ খান, এড. ফখর উদ্দিন আহমদ, এড. শাহ আশরাফুল ইসলাম আশরাফ, এড. শামীম আহমদ সিদ্দিক, আক্তার বক্স জাহাঙ্গির, হাবিবুবুর রহমান হাবিব, এড. বেলাল আহমদ, এড. আনসারুজ্জামান, এড. রেজওয়ান আহমদ চৌধুরী, এড. মফিক উদ্দিন, বদরুল আহমদ চৌধুরী, এড. ফজলুল হক সেলিম, এড. মো এজাজ উদ্দিন, এড. হাসান আহমদ পাটোয়ারি রিপন, ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. ইকবাল আহমদ, এড. আহমদ উবায়েদুর রহমান ফাহমি, এড. তানভির আহমদ খান, আব্দুল মুকিত অপি, এড. হেদায়েত তানভির, এড. আলী হায়দার, এড. আল-আছলাম মুমিন, এড. কবির আহমদ বাবর, এড. আব্দুল মুকিত, এড. বুরহান উদ্দিন, এড. খন্দকার ফরহাদ, এড. মামুন আহমদ রিপন, এড মোস্তাক আহমদ, এড. আব্দুল্লাহ আল মামুন হিরা, এড. সাজ্জাদুর রহমান, এড. সৈয়দ ইয়াছিন আরাফাত, এড.রব নেওয়াজ রানা, এড. আব্দুল হালিম রায়হান সহ জেলা আইনজীবী ফোরামের সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, এই উপমহাদেশে যখন দখদার ব্রিটিশের রাজত্ব চলছিলো যখন এদেশের মেহনতি মানুষের উপর বিট্রিশদের শোষণের মাত্রা চরম আকার ধারণ করছিলো, তখন সারা ভারতবর্ষের পেশাজীবীদের মধ্যে সর্বপ্রথম সিলেটের আইনজীবীরাই ব্রিটিশরাজকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন। তাদের মেরুদন্ডকে শক্তি ছিলো বলেই, বুকেই প্রবল সাহস ছিলো বলেই তারা পরাক্রমশালী বিট্রিশরাজের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর সাহস করেছিল বলেই তারা পরাক্রমশালী ব্রিটিশরাজের বিরুদ্ধে রুখে দাড়ানোর সাহস করেছিলেন। ভারতের প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ পুর্ণেন্দু দাশ তাঁর ফেলে আসা দিনের স্মৃতি বইয়ে লিখেছিলেন ১৯৩০ সালে গোটা ভারতবর্ষে যখন ব্রিটিশবিরোধী অসহযোগ আন্দোলন তুঙ্গে উঠলো সেই আন্দোলনের ঢেউ লাগল ছাত্রসমাজের উপরও। স্কুল কলেজের ছাত্ররা ব্যাপকভাবে মিছিল মিটিংয়ে যোগ দেওয়া শুর করলো। ফলে উপমহাদেশে অচল অবস্থা বিরাজ করল। তদানীন্তন আসামের জনশিক্ষা পরিচালক মি. ক্যানিংহোম এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ঘোষনা করলেন প্রত্যেক অভিভাবকে এই মর্মে বন্ড দিতে হবে যে, তাদের সন্তানরা ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে অংশ গ্রহন করবে না। ঘোষনা অনুযায়ী সরকারি জীবী বন্ড দিয়ে দিলেন। কিন্তু সিলেটের আইনজীবীরা প্রতিবাদে গর্জে উঠলেন। বললেন, আমাদের সন্তানদের লেখাপড়া যদি বন্ধ হয়ে যায়, হয়ে যাক তবুও আমরা এই অপমানজনক বন্ড দেব না। তারা বন্ড দিতে অস্বীকার করে সন্তানদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিলেন। তখন কিন্তু সরকারী স্কুল ছাড়া প্রাইভেট কোনো স্কুল ছিল না। সিলেটের আত্মমর্যদাশীল আইনজীবীর একটি বেসরকারী স্কুল গড়ে তোলার উদ্যোগ নিলেন। তারা বন্দরবাজার দুর্গাকুমার পাঠশালায় ‘পিপলস একাডেমি নামে প্রাতঃকালীন একটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করলেন। একজন আইনজীবী স্কুলে প্রধান শিক্ষকের দাতিত্ব গ্রহন করলেন। তার নাম যতীন্দ্রমোহন দেব চৌধুরী। সিলেজ জেলা আইনজীবী সমিতির রয়েছে গৌরবময় ইতিহাস এই বারের বিজ্ঞ সদস্য গন নিজেদের শুধু আইন পেশায় রাখেন নাই তারা সর্বক্ষেত্রে গুরুত্ব পূর্ণ ভুমিকা রেখেছেন। এই সমিতির প্রাজ্ঞ সদস্য মাহমুদুল আমীন চৌধুরী ও সুরেন্দ্রু কুমার সিনহা বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি পদে গৌরব অর্জন করেছেন। অতিথে অনেক দুঃসময় দেখেছি কিন্তু এর দুঃসয়ম কোন দিন দেখিনি। সরকারের প্রতিহিংসার কথা উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, গত ৪ বছরে দেশে সংঘাত হয়েছে এর মধ্যে ৫২৯জন নেতা কর্মী নিহত হয়েছে। আর চলতি বছরের প্রথমদিন সংঘাত সংঘর্ষে ১১জন। গত চার বছরে সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে ২ হাজার ৮০০টি। ডয়েচ একটি রির্পোট বলেছে,২০১৭ সালে সারা দেশে রাজনৈতিক সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে ৩৬৪টি। এছাড়াও ২০১৪-১৫ সালে অসংখ্য সংঘাত সৃষ্টি হয়েছে যা বলে শেষ করা যাবে না। অগনিত নেতা কর্মীরা আহত হয়েছে। মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের হয়রানি করছে এই সরকার। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে জিয়া অর্ফানেজ ট্রাস্ট দূর্নিতি মামলায় জড়ানো হয়েছে । রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে কাজ করছে বলে জানান, ডা. শাহরিয়ার। গত ৯ সেপ্টেম্বর রোববার প্রথম আলো প্রত্রিকার একটি সংবাদ শিরোনাম ছিল,মৃত ব্যক্তিকে ককটেল মারতে দেখেছে পুলিশ। সংবাদের বিবরণে বলা হয় তিনি ২৮ মসা আগে তিনি মারা গেছেন প্রায়ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তিনি গত ৫ সেপ্টেম্বর ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে এলাকায় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়েছেন। এসরকারের আমলে শাপলা চত্বরে রাতের আধারে হেফাজতে ইসলামরে অনেক নিরীহ লোককে মারা হয়েছে। পদ্মা সেতু কেলেঙ্কারী দূর্নীতে চ্যাম্পিয়ান হয়েছে এছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানীর কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে সরকারের বিরুদ্ধে। তিনি বলেন-তিন বারের প্রধান মন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করেই আগামী সংসদ নির্বাচনে দল যদি মননোয়ন দেয় তাহলে তার সঠিক জবাব দেব।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ

সংবাদটি পড়া হয়েছে 1126 বার