আরিফ-কামরানের ‘ঈদ কোলাকুলি’

Pub: শনিবার, জুন ৮, ২০১৯ ১:২০ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, জুন ৮, ২০১৯ ১:২০ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে :
মোগল আমলে স্থাপিত নগরীর শাহী ঈদগাহ। প্রতি বছরই ঈদগাহের খোলা মাঠে ঈদের নামাজ
আদায় করেন লক্ষাধিক মুসল্লি। বৃষ্টি ছিল। কখনো থেমে থেমে আবার কখনো মুষলধারে। বৃষ্টি উপেক্ষা করে মুসল্লিরা শাহী ঈদগাহে নামাজ আদায় করেন। এই জামাতে নামাজ আদায়ের কথা ছিল পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের। বৃষ্টি থাকায় তিনি ঈদগাহ পর্যন্ত এসেও চলে যান ওলিকুল শিরোমনি হযরত শাহজালাল (রহ.) দরগাহ মসজিদে। সেখানে বড় ভাই সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতকে নিয়ে নামাজ আদায় করেন।

তবে শাহী ঈদগাহে বৃষ্টির মধ্যে নামাজ আদায় করেন সিলেটের বিএনপি দলীয় বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন কামরান। তাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরীসহ সিনিয়র নেতারাও নামাজ আদায় করেন। সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী নামাজ আদায় করেই মুসল্লিদের সঙ্গে ঈদ কোলাকুলি শুরু করেন। একইভাবে নামাজের পর কোলাকুলি শুরু করেন সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান। এক পর্যায়ে দুইজন একে অপরকে জড়িয়ে ঈদ কোলাকুলি করেন এবং শুভেচ্ছা জানান। এ সময় দু’জনকে বেশ হাস্যোজ্জ্বল দেখা যায়। শুধু এবারই নয়, প্রায় প্রতি ঈদেই তাদের দু’জনের কোলাকুলি নজর কাড়ে সবার। সিনিয়র নেতা বদরউদ্দিন আহমদ কামরান। তার প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান দুটোই আছে আরিফের। আর কামরানও কখনো তার পরিষদের এক সময়ের কমিশনার ও বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর প্রতি বৈরী মনোভাব দেখাননি। তবে দু’জনের সম্পর্কে বরাবরই রয়েছে জোয়ার ভাটার টান। কখনো ভালো ও কখনো মন্দ। আবার প্রতিযোগীও। পরপর দুই বার আরিফুল হক চৌধুরীর কাছে মেয়র পদে পরাজিত হয়েছেন কামরান। এরপরও তার আফসোস নেই। দুই নির্বাচনে নিজ দলের প্রতিদ্বন্দ্বীরা তার বিপক্ষে কাজ করেছেন। এবার আরিফের সময় ভালো যাচ্ছে না। কামরান নগরের উন্নয়নে কখনো তার প্রতিপক্ষ নয়। এরপরও আরিফ এবার নগর উন্নয়ন নিয়ে সমস্যার মধ্যে রয়েছেন। পরপর দুই টার্ম সিলেটের অর্থমন্ত্রী ছিলেন ড. আবুল মাল আবদুল মুহিত। এ কারণে নগরীর উন্নয়নে যখন যা চেয়েছেন তা পেয়েছেন। অর্থমন্ত্রী টাকা দিয়েছেন। ওদিকে এবারের ঈদের দিন নগর ভবনে সরব ছিলেন আরিফুল হক চৌধুরী। দুপুরে তিনি নগরবাসীর সঙ্গে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। নগরীতে শুভেচ্ছা জানিয়েছে তিনি অসংখ্য তোরণ নির্মাণ করেছেন। আর কামরানও ছিলেন সরব। নিজ বাসাতেই তিনি ঈদের দিন সাধারণ মানুষের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন। দলীয় নেতাকর্মীসহ নগরবাসী তার বাসাতে ভিড় জমান। কামরানের পক্ষ থেকে তাদের আপ্যায়নও করা হয়। তবে সিলেটে অবস্থানরত পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনকে ঈদ শুভেচ্ছা জানাতে ভুলেননি। নিজের বাসার অনুষ্ঠান শেষ করে তিনি নগরীর ধোপাদিঘীরপাড়স্থ হাফিজ কমপ্লেক্সে গিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেনকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আসেন। এ সময় কামরানের সঙ্গে তার স্ত্রী আসমা কামরান ও বড় ছেলে ডা. আরমান আহমদ শিপলুসহ পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ