ধর্ষণে বাধা দেয়ায় একই পরিবারের ৪ জনকে মারপিট!

Pub: শনিবার, জুন ৮, ২০১৯ ২:৩৫ পূর্বাহ্ণ   |   Upd: শনিবার, জুন ৮, ২০১৯ ২:৩৫ পূর্বাহ্ণ
 
 
 

শীর্ষ খবর ডটকম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি:
হবিগঞ্জের মাধবপুরে ধর্ষণে বাঁধা দেয়ায় একই পরিবারের চারজনকে পিটিয়ে আহত করেছে একদল দূর্বৃত্ব। গুরুত্বর আহত অবস্থায় মাধবপুর থানা পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার দক্ষিণ বেজুড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।

হামলার শিকার পরিবারের অভিযোগ, শুক্রবার সন্ধ্যায় বৃষ্টি হচ্ছিল। এ সময় ওই গ্রামের নিজাম উদ্দিনের বাড়িতে কেউ না থাকার সুবাধে ঘরে প্রবেশ করে তার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে ঝাপটে ধরে প্রতিবেশী আয়ূব আলীর ছেলে জসিম মিয়া (৩০)। এ সময় মেয়ের চিৎকারে তার মা পাশের ঘর থেকে এগিয়ে আসলে জসিম মিয়া পালিয়ে যায়। পরে বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয় জসিম মিয়ার চাচা অলিদ মিয়া। কিন্তু নিজাম উদ্দিন বিষয়টি স্থানীয় মুরব্বিদের জানাতে চাইলে অলিদ মিয়া ও তার লোকজন নিজাম উদ্দিন ও তার পরিবারের উপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে অলিদ মিয়ার লোকজন মিজাম উদ্দিনের স্ত্রী ও দুই মেয়েকে মারপিট করে একটি পরিত্যক্ত ঘরে তালা বন্ধি করে রাখে।

বিষয়টি স্থানীয় লোকজন মাধবপুর থানায় জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

আহতরা হলেন- নিজাম উদ্দিন (৪০), তার স্ত্রী পারভিন বেগম (৩৫), মেয়ে লাকি আক্তার (২০) ও আঁখি আক্তার (১৫)।

এ ব্যাপারে মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান- খবর পেয়ে মাধবপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুসলেম উদ্দিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদেরকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। তবে কি কারণে ঘটনাটি ঘটেছে তা এখনো বলা যাচ্ছে না।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Print

শীর্ষ খবর/আ আ